ঢাকা

গাজীপুর ভবানীপুরে পুলিশের ইন্দনে জমি জবর দখল, ভুক্তভোগীর সংবাদ সম্মেলন

  প্রতিনিধি ১৯ এপ্রিল ২০২৩ , ৫:০২:৩৫ প্রিন্ট সংস্করণ

সাইফুল ইসলাম শুভ গাজীপুর সদর প্রতিনিধি:

গাজীপুরের জয়দেবপুর থানার আওতাধীন এলাকায় পুলিশের উপস্থিতিতে জমি জবরদখলের অভিযোগ উঠেছে। এই ঘটনায় বুধবার (১৯ই এপ্রিল) সকালে ভুক্তভোগী মোছা: লাইলি বেগম তার নিজ বাড়িতে সংবাদ সম্মেলন করেছেন।
সাংবাদিকদের দেওয়া প্রেস বিফিং অনুযায়ী, ভুক্তভোগী মোছা: লাইলী বেগম, স্বামী আ: কাদির, তার ২ং বোকরান মনিপুর মৌজাস্থিত আর এস খতিয়ান ৩১৫ এর দাগ নং ১৬১২, ১৬১৫, ১৬১৬ এ তার পৈতৃক ও ক্রয়কৃত মোট সম্পত্তি ৩৭.১৬ শতাংশ জমি ভোগদখল নিয়ে প্রতিবন্ধকতার স্বীকার হয়ে আসছিলেন। লিখিত ব্রিফিং অনুযায়ী বিবাদি মোজ্জাফফর হোসেন, লুৎফুর রহমান, রিনা বেগম সহ অন্যান্য উত্তরাধিকারগন তাদের অংশের জমি বিক্রয় করে ভুক্তভোগীর জমি জবরদখলের প্রচেষ্টা করে আসছিলেন। এই মর্মে গ্রাম্য আদালত ভুক্তভোগীকে জমি বুঝিয়ে দেওয়ার হুকুম দিলেও বিবাদীরা তা তোয়াক্কা না করে জবর দখল অব্যাহত রাখে। বিবাদিদের জ্বালিয়াতির বিষয়ে বিজ্ঞ আদালতে বিস্তারিত ঘটনা উল্লেখপূর্বক সি.আর মোকদ্দমা চলমান রয়েছে। জয়দেবপুর থানায় অভিযোগ বিবেচনাধীন থাকা অবস্থায় বিবাদী মোজাফফর ও বিবাদী রিনা আক্তারের নিকট আত্মীয় এএসআই আলম মেহেদীর ইন্দনে ও হুকুমে ১৭/৪/২০২৩ ইং তারিখ রাত আনুমানিক ১ ঘটিকায় পূর্বে রাখা নির্মাণ সামগ্রীর মাধ্যমে জমির জবর দখল শুরু করে। সংবাদ পেয়ে বাধা দিতে গেলে , বিবাদি ও তার দলবল নিয়ে ভুক্তভোগীর উপর অতর্কিত হামলা চালায়। সে সময় বিবাদীগণ লাইলি বেগমের সাথে থাকা কন্যাদের শ্লীলতাহানি সহ বেধরক মারপিট করে। লাইলী বেগম চিৎকার করলে তাকে গলা টিপে হত্যা করার চেষ্টা করা হয়। এই অত্যাচারের ঘটনা ভিডিও করা অবস্থায় লাইলী বেগমের সাথে থাকা মুঠোফোনটি ভেঙে ফেলার চেষ্টা করা হয়। ঘটনাস্থলে এএসআই আলম মেহেদী এর নেতৃত্বে টহল পুলিশ আসার পরে ভুক্তভোগী লাইলি বেগমের পরিবারকে সেখান থেকে তাড়িয়ে দেওয়া হয়। পুলিশ দাঁড়িয়ে থেকে দখলকারীদের স্থাপনা নির্মাণ করতে সাহায্য করেন। ভুক্তভোগীর বক্তব্য মতে যা সম্পুর্ণ এএসআই মেহেদী সহ তাহার সহযোগী অন্যান্য পুলিশ সদস্যর প্রত্যক্ষ ও পরোক্ষ ইন্দন হয়েছে। উক্ত বিবাদীগণ ভুক্তভোগীর পরিবারকে পরবর্তী সময় সুযোগ মত পাইলে খুন করিয়া লাশ ঘুম করে ফেলি বে নতুবা উক্ত এএসআই এর মাধ্যমে মিথ্যা মামলা দিয়ে এলাকা ছাড়া করবে বলে হুমকি দিয়েছে।
এমতাবস্থায় বৈধ কাগজপত্র থাকা সত্ত্বেও নিজের পৈত্রিক জমিতে অবৈধ স্থাপনা অপসারণ সহ পরিবারের নিরাপত্তার নিমিত্তে সংবাদ সম্মেলন করেন ভুক্তভোগী।