ভারত

মহারাষ্ট্রে বন্যা-ভূমিধসে মৃত বেড়ে ১৩৮

  প্রতিনিধি ২৪ জুলাই ২০২১ , ৩:৩৫:১০ প্রিন্ট সংস্করণ

ভোরের দর্পণ ডেস্কঃ

ভারতের পশ্চিমাঞ্চলীয় রাজ্য মহারাষ্ট্রে প্রবল বৃষ্টির ফলে সৃষ্ট বন্যা ও ভূমিধসে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে কমপক্ষে ১৩৮ জনে। এছাড়া ইতোমধ্যেই ৮৪ হাজারের বেশি মানুষকে উদ্ধার করেছে দেশটির দুর্যোগ মোকাবিলা বাহিনী। একইসঙ্গে মহারাষ্ট্রের ছয় জেলায় রেড অ্যালার্ট জারি করেছে ভারতের কেন্দ্রীয় আবহাওয়া দফতর।

মহারাষ্ট্র রাজ্য সরকারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, রাইগড় ও সাতারা জেলায় মৃতের সংখ্যা সবচেয়ে বেশি। রাইগড়ের মাহাদ মহকুমায় ভূমিধসের ফলে একটি গ্রামের ৩৮ জনের মৃত্যু হয়েছে। পুলিশ ও জাতীয় দুর্যোগ মোকাবিলা বাহিনী সেখানে এখনও উদ্ধার কাজ পরিচালনা করছে।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভির প্রতিবেদন অনুযায়ী, প্রবল বৃষ্টি ও অন্যান্য কারণে শুক্রবার সন্ধ্যা থেকে এখন পর্যন্ত ১৩৮ জনের মৃত্যুর খবর পাওয়া গেছে বলে শনিবার নিশ্চিত করেছেন মহরাষ্ট্রের ত্রাণ ও পুনর্বাসন মন্ত্রী বিজয় ওয়াদেত্তিয়ার।

এদিকে বন্যার কারণে মহারাষ্ট্রের পুনে অঞ্চল থেকে মোট ৮৪ হাজার ৪৫২ জনকে উদ্ধার করে ত্রাণ ও আশ্রয় শিবিরে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। এর মধ্যে কেবল কোলাপুর জেলা থেকেই ৪০ হাজারের বেশি মানুষকে উদ্ধার করা হয়েছে। সাংলি জেলা থেকে নিরাপদ সরিয়ে নেওয়া হয়েছে ৩৬ হাজার মানুষকে। ৫৪টি গ্রাম পানিতে সম্পূর্ণ ডুবে গেছে। এ ছাড়া আরও ৮২১টি গ্রামের কিছু এলাকা পানিতে ডুবে গেছে।

ভারতের আবহাওয়া দফতর মৌসম ভবন ইতোমধ্যেই রাইগড়, রত্নাগিরি, সিন্ধুদূর্গ, পুনে, সাতারা ও কোলাপুর জেলায় রেড অ্যালার্ট জারি করেছে। উদ্ধারকাজে রাজ্য ও জাতীয় বিপর্যয় মোকাবিলা বাহিনীর সঙ্গে ভারতীয় সেনা ও নৌবাহিনীও যোগ দিয়েছে। হেলিকপ্টারে করে দুর্গতদের নিরাপদ জায়গায় নিয়ে যাওয়া হচ্ছে। নামানো হয়েছে নৌকাও।

এদিকে মহারাষ্ট্রের রাইগড় জেলায় ভূমিধসে মৃতদের জন্য শোকপ্রকাশ করেছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। তিনি মৃতদের পরিবারের জন্য ২ লাখ টাকা করে ক্ষতিপূরণের ঘোষণা করেছেন। মোদি জানিয়েছেন, কেন্দ্রীয় সরকার পরিস্থিতির দিকে নজর রাখছে।

এছাড়া মহারাষ্ট্রের ক্ষমতাসীন উদ্ধব ঠাকরে সরকারকে সব রকমের সাহায্যের আশ্বাস দিয়েছে মোদি সরকার।

আরও খবর

Sponsered content