বাংলাদেশ

রিজেন্ট হাসপাতালের মিরপুর শাখাও সিলগালা

  প্রতিনিধি ৮ জুলাই ২০২০ , ৮:১৪:০৪ প্রিন্ট সংস্করণ

অনলাইন ডেস্কঃ এবার বেসরকারি রিজেন্ট হাসপাতালের মিরপুর শাখাও বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে। নমুনা পরীক্ষা ছাড়াই করোনার ফলাফল দেওয়াসহ নানা অভিযোগে বুধবার বিকেলে হাসপাতালটির মিরপুর শাখা বন্ধ করে দিয়ে ‘সিলগালা’ করে দেয় র‌্যাব।

অভিযানের নেতৃত্ব দেওয়া র‌্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারওয়ার আলম বলেন, হাসপাতালটি সিলগালা করা হচ্ছে। পুরো প্রক্রিয়া শেষ হতে আরও কিছুটা সময় লাগবে।

এর আগে মঙ্গলবার সন্ধ্যায় উত্তরায় রিজেন্ট হাসপাতালের শাখা ‘সিলগালা’ করে দেয় র‌্যাব। পরে রিজেন্টের প্রধান কার্যালয়ও বন্ধ করা হয়।

সারওয়ার আলম সাংবাদিকদের বলেন, রিজেন্টের মিরপুর শাখার হাসপাতালটি করোনা রোগীর চিকিৎসায় নানা প্রতারণা করেছে। তারা রোগীদের স্যাম্পল নিয়ে পরীক্ষা না করে ফেলে দিত অথচ প্রতিটি পরীক্ষার জন্য ৩৫০০ টাকা নেয়া হতো। তিনি বলেন, ২০১৮ সালে মিরপুরের এই হাসপাতালে আমি অভিযান চালিয়ে জরিমানা করে সতর্ক করে দিয়েছিলাম।

হাসপাতালটিতে করোনা রোগীর চিকিৎসা দেয়া হচ্ছিল। গতকাল মঙ্গলবার পর্যন্ত সেখানে ২২ জন রোগী চিকিৎসা নিচ্ছিল। আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর পক্ষ থেকে গতকালই রোগীদের অন্যত্র চলে যাওয়ার জন্য বলা হয়। রোগীরা হাসপাতালটি বন্ধ করে দেয়ার আগেই সেখান থেকে চলে যান।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর মঙ্গলবার ওই হাসপাতালের উত্তরা ও মিরপুর শাখা বন্ধের নির্দেশ দেয়। এরপর সন্ধ্যায় উত্তরার ১১ নম্বর সেক্টরের ১৭ নম্বর সড়কে রিজেন্ট হাসপাতালের শাখাটি ‘সিলগালা’করে দেয় র‌্যাব। পরে উত্তরা ১২ নম্বর সেক্টরের ১৪ নম্বর সড়কে রিজেন্টের প্রধান কার্যালয়ও বন্ধ করা হয়।

এর আগে সোমবার বিকালে রাজধানীর উত্তরা ও মিরপুরের রিজেন্ট হাসপাতালে অভিযান চালায় র‌্যাব। এ সময় হাসপাতালটির ব্যবস্থাপকসহ আটজনকে আটক করা হয়। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সারওয়ার আলমের নেতৃত্বে অভিযানে র‌্যাব করোনার ভুয়া রিপোর্ট দেয়ার প্রমাণ পায়। এছাড়া হাসপাতালটির লাইসেন্সের মেয়াদ ছয় বছর আগেই শেষ হয়ে যাওয়ার প্রমাণ পেয়েছে র‌্যাব। কোভিড-১৯ ডেডিকেটেড হওয়ায় রোগীদের কাছ থেকে টাকা না নেয়ার কথা থাকলেও হাসপাতালটির বিরুদ্ধে করোনা টেস্ট ও ভর্তি রোগীদের কাছ থেকে বিপুল পরিমাণ টাকা নেয়ারও অভিযোগ রয়েছে।