দেশজুড়ে

শরণখোলায় মাদক সেবনে বাধাঁ দেওয়ায় গ্রাম পুলিশকে পিটিয়ে জখম

  প্রতিনিধি ১৩ এপ্রিল ২০২৪ , ৪:২৪:৩৭ প্রিন্ট সংস্করণ

শরণখোলায় মাদক সেবনে বাধাঁ দেওয়ায় গ্রাম পুলিশকে পিটিয়ে জখম

বাগেরহাটের শরণখোলায় মাদক সেবনে বাধাঁ দেয়ায় রুবেল ফরাজি নামের এক গ্রাম পুলিশকে পিটিয়ে গুরুতর জখম করেছে মাদক ব্যবসায়ীরা। তারা রুবেলের গলায় শিকল দিয়ে বেধেঁ লোহার পাইপ ও হাতুড়ি দিয়ে শরিরের বিভিন্ন স্থানে জখম করে।

পরে এলাকাবাসী উদ্ধার করে তাকে শরণখোলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তী করেছে। ঘটনাটি ঘটেছে শুক্রবার (১২ এপ্রিল) বেলা ১১টার দিকে উপজেলার সাউথখালী ইউনিয়নের বগী দশঘর গ্রামে। আহত রুবেল উপজেলার সাউথখালী ইউনিয়নের বগী দশঘর গ্রামের ৭নং ওয়ার্ডের গ্রাম পুলিশ।

শরণখোলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন অবস্থায় রুবেল ফরাজি জানান, তার এলাকায় কতিপয় চিহ্নিত ব্যক্তি দীর্ঘদি ধরে মাদকের ব্যবসা চালিয়ে আসছিল। তিনি সম্প্রতি এলাকায় মাদক ব্যবসা বন্ধের জন্য তৎপর হন। ইতোমধ্যে কয়েকজন মাদক সেবিকে ধরে মুসলেকা নিয়ে ছেড়ে দেন। এ ঘটনায় মাদক ব্যবসায়িরা ক্ষিপ্ত হয়ে তাকে বিভিন্ন সময় হুমকি দিয়ে আসছিল।

বিষয়টি তিনি সংশ্লিষ্ট চেয়ারম্যানকে জানিয়েছেন। এ অবস্থায় শুক্রবার বোনের জন্য ঔষধ কিনে বাড়ি ফেরার পথে চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ি সোহেল মীর, আসলাম, ইমরান ও মিরাজুলের নেতৃত্বে মাদকসেবিরা গ্রাম পুলিশ রুবেল ফরাজির পথ আটকে ধরে। এরপর তারা রুবেলের গলায় শিকল দিয়ে বেধেঁ লোহার পাইপ ও হাতুড়ি দিয়ে শরিরের বিভিন্ন স্থানে পিটিয়ে জখম করে রাস্তায় ফেলে রেখে যায়।

পরে এলাকাবাসী তাকে উদ্ধার করে শরণখোলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তী করে।
সাউথখালী ইউপি চেয়ারম্যান ইমরান হোসেন রাজিব বলেন, সোহেল মীরসহ যারা গ্রাম পুলিশকে মারপিট করেছে, তারা এলাকায় চিহ্নিত মাদক ব্যবসায়ি। তাছাড়া এরা এলাকায় চুরি, ছিনতাই ও সন্ত্রসী কার্যকলাপসহ বিভিন্ন অপরাধের সাথে জরিত। এদের বিরুদ্ধে মাদকসহ বিভিন্ন অপরাধের একাধিক মামলা রয়েছে।

শরণখোলা থানার অফিসার ইন চার্জ এ এইচ এম কামরুজ্জামান বলেন, বিষয়টি আমরা গুরুতের¡ সাথে দেখছি। এব্যপারে ভুক্তভোগীকে মামলা দিতে বলা হয়েছে। মামলা দিলে পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

আরও খবর

Sponsered content

Powered by