রবিবার ৭ জুন ২০২০

২৪ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭

ই-পেপার

১৬ মে ২০২০ : ০১ : ৫৬

‘রোনালদো ক্লান্ত হন না, সব সময় বেশি চান’

২০১৯ সালে উয়েফা নেশনস লিগ জিতেছেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো। পাঁচবার করে উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগ ও ব্যালন ডি’ অর শিরোপা জিতেছেন। নামের সঙ্গে রয়েছে আরও অনেক শিরোপা। তবু তার তৃপ্ত নন তিনি। সিআর সেভেনের পর্তুগাল জাতীয় দলের সতীর্থ বানার্দো সিলভা এমনটা মনে করেন। 

 ম্যানচেস্টার সিটির এই তারকার দাবি, দীর্ঘদিন রোনালদোর ফুটবল বিশ্ব শাসন করার পেছনের কারণটা হচ্ছে তার জেতার মানসিকতা। 
সিলভা বলেন, ‘চিন্তা ভাবনার কারণেই নিজেকে সেরাদের সেরা হিসেবে পরিচয় করাতে সক্ষম হয়েছেন তিনি। বর্তমানে তার বয়স ৩৫। দীর্ঘ ১৫ বছরের বেশি সময় ধরে শীর্ষ স্তরে খেলছেন। তিনি ক্লান্ত হন না, সব সময় বেশি চান।’
এখনই থেমে যেতে চান না। ক্যারিয়ার আরও সমৃদ্ধ করতে প্রস্তুত রয়েছেন জুভেন্টাস ফরোয়ার্ড।
২৫ বছর বয়সী পর্তুগীজ মিডফিল্ডার বললেন, ‘চ্যাম্পিয়নস লিগ আরও জিততে চান তিনি। পর্তুগালের হয়ে আরও শিরোপা চান। লিগ জয়, ব্যক্তিগত শিরোপা, গোল সব কিছুই বেশি বেশি পেতে চান।’

শুধু মূল ম্যাচেই এমন নয়। প্রস্তুতি চলাকালেও জয়ী হন রোনালদো। 
‘ধরুন অনুশীলন চলছে। প্রস্তুতি ম্যাচের স্কোর ১-১। ম্যানেজার বললেন, যে গোল করবে সেই দল জিতবে। সব সময় জয়ী হবেন তিনি। এটাই তার মধ্যে সবচেয়ে বিব্রতকর বিষয়।’ সিলভা যোগ করেন।
ম্যাচ যখন নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যায় ঠিক তখনই ত্রাতা হয়ে দাঁড়ান রোনালদো। 
‘কঠিন পরিস্থিতিতে আপনি হয়ত জানেন না ম্যাচের ফল কি হবে। বল তাকে বাড়িয়ে দিন। সিদ্ধান্ত নিয়ে নেবেন কি হতে চলেছে। কারণ তার পায়ে বল আছে অর্থাৎ বিশেষ ঘটতে চলেছে।’
সিলভার চোখে ধরা পড়েছে, কেনো রোনালদো বিশ্ব সেরা।  
তার মতে,  ‘অনুশীলন চলাকালেও বিব্রতকর বিষয়টি হচ্ছে, তার পা থেকেই আসে সেরা গোলটি। আমার মনে হয়, গুরুত্বপূর্ণ সময়ে নিজের সেরাটা দিতে সক্ষম তাই তিনি সবার থেকে আলাদা।’